Vivo T1 44W (4GB+128GB, 44W charging) review in Bengali

ভারতে কিছুদিন আগেই Vivo T1 44w ফোন লঞ্চ হয়েছে। এই ফোনটি 15 হাজারের মধ্যে খুব দুর্দান্ত একটি ভালো ফোন। আজকে আমরা এই ফোনের ফুল রিভিউ করবো, যেটা দেখে আপনারা বুঝতে ও শিখতে পারবেন একটি ফোন কেনার আগে সেই ফোনের কি কি দেখতে হয়। তাহলে চলুন এই ফোনের একটা প্রপার বাংলা রিভিউ করা যাক

This is our Vivo T1 44W review in Bengali---

Price In India

Vivo T1 44W ফোনটি 4GB RAM + 128GB STORAGE সহ দাম 14,499 টাকা, 6GB RAM+ 128GB STORAGE দাম 15,999 টাকা এবং 8GB + 128GB এর দাম 17,999 টাকা। সাথে HDFC Bank card থাকলে দিচ্ছে 1000 টাকা ডিসকাউন্ট। HDFC কার্ড না থাকলে SBI CREDIT CARD থাকলে দিচ্ছে 10% ডিসকাউন্ট। আর ফোন এক্সচেঞ্জ করলে পেয়ে যাবেন একদম ₹12,500 টাকায় FLIPKART অ্যাপে।

Vivo T1 44W full specifications:

vivo t1 44w

Box Content

সর্বপ্রথম আমরা এই ফোনের বক্স নিয়ে কথা বলবো। Vivo T1 44W ফোনের সাথে বক্সের ভিতরে একটি back cover, কিছু গুরু্বপূর্ণ কাগজ আছে, এছাড়াও চার্জার ও usb c ক্যাবল, সিমকার্ড ইজেক্ট টুল এবং নতুন Vivo T1 handset আছে।

Design and build quality

তারপরই আমরা এই ফোনের build ও ডিজাইনের দিকে লক্ষ করবো। এই ফোনটি simple 3d look ও গরিলা গ্লাস 5 প্রটেকশন এর সাথে আছে। 3d look এই ফোনে নতুন চমক এনে দিয়েছে।

অন্যান্য ফোনের সঙ্গে তুলনা করলে এই ডিভাইসের বক্সি ডিজাইন খুব সুন্দর দেখায়। এছাড়াও স্প্ল্যাশ রেসিসটেন্স দেওয়া হয়েছে যদি পানির ফোঁটা পরে তবুও কিছু ক্ষতি হবে না।

এই ফোনের নিচের দিকে Type C পোর্ট, mic hole, duel speaker, 3.5mm jack দেওয়া আছে। উপরের দিকে IR blaster ও সিম ইজেক্ট টুল দেওয়া হয়েছে।

ডানদিকে volume up/down key এবং পাওয়ার বাটন দেওয়া আছে। আর এই ডিভাইসের ডিসপ্লের সাথে finger print সেন্সর দেওয়া হয়েছে।

Display

Display এই ফোনের highlights ফিচার গুলির মধ্যে একটি। এই ফোনে দেওয়া হয়েছে 6.44inch FHD+ AMOLED ডিসপ্লে। সাথে 2400*1080 পিক্সেল ডেনসিটি।

ডিসপ্লে ফিচার গুলি দেখলে কোনো ভাবেই এই ফোনকে 15 হাজারের নিচের ফোন বলে মনে হয় না।

আর AMOLED স্ক্রীন থাকার কারণে এটির brightness যতেষ্ট বেশি ও viewing angle যতেষ্ট ভালো আছে।

এই ডিভাইসের brightness ও viewing অঙ্গেলস নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না এটা আমরা এখনই বুঝতে পারছি।

আর স্ক্রীন টু বডি 90.12% ও aspect ratio 20:9 যা সত্যিই অসাধারণ একটা ফিচার অন্যান্য ফোনের থেকে।

CAMERA

Vivo T1 44W ফোনে 50mp (F/1.8 Aperture) Primary Camera দেওয়া হয়েছে যেটা থেকে খুব সহজে colorful, details, clear ও high resolution image অনায়াসে তোলা যাবে, 2MP(f/2.4 aperture) ULTRA WIDE এবং 2MP (f/2.4 aperture) ম্যাক্রো লেন্স।

ভিডিও কোয়ালিটি খুব ভালো দাম হিসাবে।

এছাড়াও 16MP (f/2.0 aperture) এর একটি ফ্রন্ট ক্যামেরা সেন্সর ব্যাবহার দুর্দান্ত সেলফি তোলার জন্য।

vivo t1 44w

Performance

Vivo T1 44W ফোনে দেওয়া হয়েছে Qualcomm Snapdragon 680 প্রসেসর। যে প্রসেসরটি 2021 সালের সেরা একটি budget প্রসেসর বলে মনে করা হয়।

এই প্রসেসরটি 6nm technology এর উপর তৈরি যার base clock 2.4Ghz, খুব অসাধারণ gaming performance আমাদের উপহার দেবে।

এর প্রমাণ আমরা AnTuTu টেস্ট করে আগেই দেখেছি।

Battleground (BGMI) Smooth 60FPS সাপোর্ট খুব ইজি ভাবে দিতে পারবে।

অনেক সময় পর্যন্ত গেম খেলার পরেও এটি বেশি heat হয় না কারণ এখানে Qualcomm Snapdragon 680 ব্যাবহার করা হয়েছে যা বাজেট ফোনের জন্য ভালো একটি প্রসেসর।

Ram and Storage Support

RAM ও Storage যেকোনো ফোনের দুটি গুরু্বপূর্ণ অংশ। Vivo T1 44W ফোনে LPDDR4X RAM সাপোর্ট ও UFS 2.2 স্টোরেজ সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে যা MULTI-TASKING কে এক অন্য পর্যায়ে নিয়ে যায়।

এই ফোনে 4GB এক্সট্রা ভার্চুয়াল RAM এর সাপোর্ট আছে। এই ভার্চুয়াল RAM মাল্টি টাস্কিং করতে অনেকটা সাহায্য করবে।

এছাড়াও 6GB ও 8GB RAM ভ্যারিয়েন্ট সাথে  128 GB স্টোরেজ সাপোর্ট দেওয়া আছে।

SOFTWARE

ANDROID 12 ও Funtouch OS 12 বক্সের ভিতরেই Vivo T1 ফোনের সাথে থাকছে।

এই কম্বিনেশন আমদের সফটও়্যারগুলোর ওপেন ক্লোজ, ফ্রেন্ডলী layout, simple Touch control দ্রুত করে আর এই ফোনে তেমন কোনো অ্যাড নেই যেটি খুব ভালো একটি বিষয়।

অন্যান্য কোনো 3RD পার্টি অ্যাপ নেই।

Audio

Vivo T1 44W ফোনে সমস্ত রকমের অডিও ফরম্যাট আছে।

WAV, MP3, APE, OPUS, MP1, MP2 প্রায় সমস্ত রকমের ফরম্যাট আছে।

বেশি আওয়াজ নেই, একদম clear আওয়াজ দিচ্ছে যা আপনার experience এর কোনো কমতি হতে দেবে না।

Connectivity Features

এই ডিভাইসে 4G, 3G, 2G, Wi-Fi, Bluetooth ভার্সন 5.1, গুগল ম্যাপস, ইউএসবি connectivity, pre installed browser, 4G LTE, WCDMA এবং GSM সাপোর্ট আছে।

Battery capacity

এই ফোনে 44W ফাস্ট চার্জিং ও 5000mAh battery দেওয়া আছে।

চার্জিং এর কথা বললে কোম্পানির মতে এটি 0 to 50% charge হতে 28 মিনিট সময় লাগবে কিন্তু এটির full চার্জ হতে কম করে 50 থেকে 55 মিনিট সময় লাগে।

ব্যাটারি ব্যাকআপ এই ফোনের খুবই অসাধারণ।

এটি 8 থেকে 9 ঘণ্টা কন্টিনিউ ভিডিও playback দেবে যেটা সবাই করে না কিন্তু হা Vivo T1 44W ফোন এটাই আমাদের প্রোভাইড করে।

এর থেকে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে আপনি যদি mixed use করেন তাহলে এক দিন অনায়াসে চলে যাবে।

Extra Features

Other Details
Smartphone
  • Yes
SIM Size
  • Nano Sim
User Interface
  • Funtouch OS 12 (Based on Android 12)
Removable Battery
  • No
SMS
  • Yes
Graphics PPI
  • 408 PPI
SIM Access
  • Dual Sim Dual Standby
Sensors
  • Accelerometer, Ambient Light Sensor, Proximity Sensor, E-Compass, In-Display Fingerprint Sensor, Gyroscope
Browser
  • Vivo Browser, Google Chrome
Other Features
  • RAM: 4 GB + 1 GB Extended RAM, Dual 4G, Dual 5G, WideIne Level 1 Certified, 66W Fast Charging, Handset Material: Plastic
GPS Type
  • GPS, BEIDOU, GALILEO, GLONASS

এই সমস্ত কিছুর সাপোর্ট এই ফোনকে অন্য মাত্রায় নিয়ে গিয়েছে।

Conclusion

সর্বশেষে বলেতে গেলে বলতে হয়, এই Vivo T1 44W ফোনটি একটি 15 হাজার টাকার মধ্যে al rounder ও দুর্দান্ত একটি ফোন। This is our Vivo T1 44W review in Bengali

Akash

I am Akash. On my website we post various news related to technology every day. And this site is made for tech review, new launch, latest news lottery news etc.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।